সম্পাদকের বাছাই

Home সম্পাদকের বাছাই
Featured posts

টাঙ্গাইলে ড্রামের ভেতর ব্যবসায়ীর দ্বিখন্ডিত লাশ

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃটাঙ্গাইলের ঘাটাইলে ধানক্ষেতে পড়ে থাকা ড্রামের ভেতর থেকে হেলাল উদ্দিন (৩৫) নামের এক ব্যবসায়ীর দ্বিখণ্ডিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

 

গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার খিলপাড়া এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত হেলাল উদ্দিন (৩৫) গোপালপুর উপজেলার ডুবাইল এলাকার গাজী শেখের ছেলে। তিনি ঘাটাইল পৌর এলাকায় ভাঙ্গারির ব্যবসা করতেন।

পুলিশ জানায়, এলাকাবাসীর উপজেলার খিলপাড়া এলাকায় একটি ধানক্ষেতে ড্রামের ভেতরে একটি লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ড্রামের ভেতর থেকে ওই ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

নিহতের লাশ দ্বিখণ্ডিত ছিল। দুর্বৃত্তরা প্রথমে তাকে হত্যা করে ড্রামের ভেতরে লাশ ভরে রাখে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৩ জনকে আটক করা হয়েছে।  তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার সকালে টাঙ্গাইলের গোপালপুরের নিজ বাড়ি থেকে ঘাটাইল উপজেলায় হেলাল উদ্দিন তার কর্মস্থলের উদ্দেশে বের হয়। পরে তার কর্মস্থল থেকে ভাঙ্গরির জিনিসপত্র নিয়ে বের হয়ে আর ফিরে আসেননি। বিকেলের দিকে হেলাল বাড়িতে ফিরে না আসায় পরিবারের লোকজন তাকে একাধিকবার ফোন দিয়েও তার সাথে যোগাযোগ করতে পারেননি। এরপর থেকে তাকে আর পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে নিহতের শ্বশুর আব্দুল বাছেদ বলেন, খোঁজাখুঁজির পর আমরা পরে জানতে পারি- ঘাটাইলে একটি লাশ উদ্ধার হয়েছে। পরে আমরা থানায় এসে লাশটি সনাক্ত করি। আমরা এ ঘটনায় আসামিদের গ্রেফতার এবং বিচারের দাবি করছি।

এ ব্যাপারে ঘাটাইল থানার ওসি মাকসুদুল আলম বলেন, মঙ্গলবার রাতে পুলিশ খবর পেয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

পরিকল্পিকভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে। কি কারণে তাকে হত্যা করেছে তা তাৎক্ষণিভাবে ওসি জানাতে পারেননি।

জাতিসংঘ অধিবেশনে যোগ দিতে ৬ দিনের সফরে ২১ সেপ্টেম্বর ঢাকা ছাড়বেন প্রধানমন্ত্রী

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৭৩তম অধিবেশনে যোগ দিতে ৬ দিনের সরকারি সফরে ২১ সেপ্টেম্বর, শুক্রবার নিউইয়র্কের পথে যুক্তরাজ্যের লন্ডনের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন।

 

২৭ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ দেওয়ার কথা রয়েছে। একইদিন তার জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতেরেসের সঙ্গে বৈঠক করারও কথা রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আয়োজিত সংবর্ধনায় যোগ দেবেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের সেক্রেটারি অব স্টেট মাইক পম্পেওর সঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন।

শুক্রবার বাংলাদেশ বিমানের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে লন্ডনের উদ্দেশে রওনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী। একই দিনে লন্ডনের স্থানীয় সময় ৩টা ৫৫ মিনিটে বিমানটির হিথ্রো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের কথা রয়েছে। যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাইকমিশনার নাজমুল কাওনাইন প্রধানমন্ত্রীকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানাবেন।

লন্ডনে দু’দিনের যাত্রাবিরতির পর প্রধানমন্ত্রী রবিবার সকালে নিউ ইয়র্কের উদ্দেশে রওনা হবেন।

বিমানটির ওইদিনই স্থানীয় সময় ১টা ৪০ মিনিটে নিউজার্সির নিউইয়র্ক লিবার্টি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের কথা রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মাদ জিয়াউদ্দিন এবং বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন প্রধানমন্ত্রীকে বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানাবেন।

বিমানবন্দরে অর্ভ্যথনা পর্ব শেষে একটি সুশোভিত মোটর শোভাযাত্রা সহযোগে প্রধানমন্ত্রীকে নিউইয়র্কের গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে নিয়ে যাওয়া হবে। যুক্তরাষ্ট্র সফরকালে তিনি সেখানেই অবস্থান করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাষ্ট্র সফরের প্রথম দিন সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের মিডটাউনের হোটেল হিলটনে প্রবাসী বাংলাদেশী আয়োজিত এক সংবর্ধনায় যোগ দেবেন। সফরের দ্বিতীয় দিনে তিনি জাতিসংঘ সদরদফতরে জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের স্থায়ী মিশনের আয়োজনে অনুষ্ঠেয় ‘গ্লোবাল কল টু অ্যাকশন অন ড্রাগ প্রবলেম’ শীর্ষক হাই লেভেল ইভেন্টে যোগদান করবেন।

প্রধানমন্ত্রী সেখানে জাতিসংঘ মহাসচিব এন্টোনিও গুতেরেজ এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড জে. ট্রাম্পের সঙ্গে ফটোসেশনেও অংশগ্রহণ করবেন।

পরে জাতিসংঘ সদরদফতরের ইকোসক চেম্বারের (ইসিওএসওসি) ইউএন হাইকমিশনার ফর রিফ্যুজিস আয়োজিত ‘গ্লোবাল কমপ্যাক্ট অন রিফ্যুজিস:এ মডেল ফর গ্রেটার সলিডারিটি অ্যান্ড কোঅপারেশন’ শীর্ষক হাইলেভেল ইভেন্টে অংশগ্রহণ করবেন।

জাতিসংঘ সদরদফতরের দ্বিপাক্ষিক সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হবেন।

প্রধানমন্ত্রী হোটেল গ্রান্ড হায়াতে যুক্তরাষ্ট চেম্বার অব কমার্স আয়োজিত গোলটেবিল মধ্যাহ্নভোজন বৈঠকেও অংশ নেবেন। বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সাধারণ পরিষদের সম্মেলন কক্ষে নেলসন ম্যান্ডেলা পিস সামিটেও বক্তৃতা প্রদানের কথা রয়েছে।

নিউইয়র্কের কনভেন কনফারেন্স সেন্টারে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম আয়োজিত ‘সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট ইমপ্যাক্ট সামিট’-এও তার যোগদানের কথা রয়েছে। শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সদর দফতরের কনফারেন্স রুম ১১তে কানাডার প্রধানমন্ত্রী আয়োজিত নারী শিক্ষায় বিনিয়োগ সংক্রান্ত একটি গোলটেবিল আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন।

তিনি জাতিসংঘের বৈশ্বিক শিক্ষা বিষয়ক বিশেষ দূতের আয়োজনে জাতিসংঘ সদর দফতরের ৩ নম্বর কক্ষে অনুষ্ঠেয় ‘মেকিং ইমপসিবল পসিবল: আনলকিং হিউম্যান পটেনশিয়াল থ্রো দ্যা ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স ফ্যাসিলিটি ফর এডুকেশন’ শীর্ষক হাই লেভেল ইভেন্টে অংশগ্রহণ করবেন।

সন্ধ্যায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আয়োজিত স্বাগত সংবর্ধনায় অংশগ্রহণ করবেন। সংবর্ধনাটি নিউইয়র্কের লোটিতে নিউইয়র্ক প্যালেস হোটেলে অনুষ্ঠিত হবে।

শেখ হাসিনা ২৫ সেপ্টেম্বর সাইবার নিরাপত্তা এবং আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বিষয়ক হাই লেভেল ইভেন্টে অংশ গ্রহণ করবেন। জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশন এবং জাতিসংঘের নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ক কার্যালয় (ইউএনওডিএ) যৌথভাবে জাতিসংঘ সদর দফতরের ৩নং কক্ষে এটির আয়োজন করবে।

সাধারণ পরিষদ ভবনের নর্থ ডেলিগেট লাউঞ্জে জাতিসংঘের মহাসচিব আয়োজিত মধ্যাহ্ন ভোজে যোগদান করবেন প্রধানমন্ত্রী। বিকেলে জাতিসংঘের অছি পরিষদ আয়োজিত জাতিসংঘ মহাসচিবের হাই লেভেল ইভেন্ট ‘অ্যাকশন ফর পিস কিপিং’ (এ ফোর পি) এ অংশগ্রহণ করবেন তিনি।

২৬ সেপ্টেম্বর, ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক হেনরিয়েটা ফোর, ইউএন হাইকমিশনার ফর রিফ্যুজিস (ইউএনএইচসিআর) ফিলিপ্পো গ্রান্দি এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র ও নিরাপত্তা নীতি বিষয়ক উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি মঘেরিনি জাতিসংঘ সদর দফতরের দ্বিপাক্ষিক সম্মেলন কক্ষে পৃথকভাবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। একইস্থানে প্রধানমন্ত্রী এস্তোনিয়ার প্রেসিডেন্ট ক্রেস্টি কালিজুলেইদের সঙ্গেও বৈঠক করবেন।

২৭ সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনা সৌদি আরবের স্থায়ী মিশন এবং ওআইসি সচিবালয়ের যৌথ উদ্যোগে জাতিসংঘ সদর দপ্তরের ১২নং কক্ষে অনুষ্ঠেয় সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কিত হাইলেভেল সাইড ইভেন্টে অংশগ্রহণ করবেন।

প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ মহাসচিব গুতেরেজের সঙ্গে জাতিসংঘ সদরদফতরে তার সভাকক্ষে বৈঠক করবেন।আন্তর্জাতিক কমিটি অব রেডক্রসের (আইসিআরসি) প্রেসিডেন্ট পিটার মওরার সঙ্গে জাতিসংঘের দ্বিপাক্ষিক সভাকক্ষে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের কথা রয়েছে। একইদিনে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাতের কথা রয়েছে।

‘নারীর ক্ষমতায়মের মাধ্যমে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি’ শীর্ষক এই উচ্চ পর্যায়ের আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন প্রধানমন্ত্রী। এটি লিথুয়ানিয়ার প্রেসিডেন্টের আয়োজনে জাতিসংঘ সদর দফতরের ৩নং কক্ষে অনুষ্ঠিত হবে। প্রধানমন্ত্রীর জাতিসংঘ সদর দফতরে ইন্টার প্রেস সার্ভিসেস (আইপিএস) আয়োজিত সংবর্ধনাতেও যোগদানের কথা রয়েছে।

সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সদর দফতরে সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশনে ভাষণ প্রদান করবেন এবং নিউইয়র্কের পার্ক অ্যাভেনিউয়ে গ্লোবাল হোপ কোয়ালিশন আয়োজিত বার্ষিক নৈশভোজে যোগ দেবেন।

অন্যবারের মতো এবারো সাধারণ অধিবেশনে ভাষণ প্রদানের পরের দিন, ২৮ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনের নিউইয়র্ক কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে অংশগ্রহণ করবেন প্রধানমন্ত্রী।

বিকেলে শেখ হাসিনা নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ইতিহাদ এয়ারওয়েজের একটি বিমানযোগে ঢাকার উদ্দেশে যুক্তরাষ্ট্র ত্যাগ করবেন। তার ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে আবুধাবী হয়ে দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

লেবাননকে গোলবন্যায় ভাসালো বাঘিনীরা

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃএএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ বাছাইপর্বের ম্যাচে কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে লেবাননকে ৮ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশের বাঘিনীরা।

 

বুধবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে শুরু হয় ম্যাচটি।

প্রথমার্ধে বাংলাদেশ এগিয়েছিল ৫-০ গোলে। জোড়া গোল করেছেন সাজেদা তহুরা, শামসুন্নাহার। একটি করে গোল করেছেন আনাই ও রোজিনা। এ জয়ে বাংলাদেশ দুই ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে।

একাধিক সুযোগ নস্টের পর বাংলাদেশ এগিয়ে যায় ১৪ মিনিটে। মনিকা চাকমার পাস ধরে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে গোল করেন সাজেদা।

১৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করে স্বাগতিক কিশোরীরা। তহুরার শট ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালে বল পাঠান লেবাননের শোফিয়ে।

তহুরার দারুণ গোলে বাংলাদেশ ৩-০ গোলে এগিয়ে যায় ২৩ মিনিটে। আখি খাতুনের লম্বা পাস ধরে বক্সে ঢুকে দুর্দান্ত গোল করেন এ স্ট্রাইকার।

বাংলাদেশ ব্যবধান ৪-০ করে ২৬ মিনিটে অানাই মগিনির গোলে। আখির পাস থেকে ডান দিক দিয়ে ঢুকে কোনাকুনি শটে গোল করেন আনাই। ৪০ মিনিটে পঞ্চম গোল করে বাংলাদেশ। আখির লম্বা পাস ধরে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন সাজেদা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ব্যবধান বাড়িয়ে নেয় স্বাগতিক কিশোরীরা। ৪৮ মিনিটে লেবাননের এক ডিফেন্ডারের কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে ছোট শামসুন্নাহার গোলরক্ষকের পাশ দিয়ে ব্যবধান ৬-০ করেন।

৬৩ মিনিটে আবার ছোট শামসুন্নাহারের গোল। সুলতানার নিচু ক্রস ধরে গোল করেন এ ফরোয়ার্ড। বাংলাদেশ ব্যবধান ৮-০ করে ৭৫ মিনিটে। বদলি ইলামনির পাস থেকে গোল করেন আরেক বদলি রোজিনা আক্তার।

তিন মাসের অসুস্থতা ছুটিতে সৈয়দ আশরাফ

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃসংসদের কার্যক্রম থেকে আগামী ৯০ কার্য দিবসের জন্য ছুটি নিয়েছেন অসুস্থ হয়ে থাইল্যান্ডে চিকিৎসাধীন জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। তার টানা ৯০ কার্যদিবসের ছুটি মঞ্জুর করেছে জাতীয় সংসদ। 

 

মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে দশম জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশনে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী জনপ্রশাসন মন্ত্রীর ছুটির আবেদনপত্র পাঠ করে সংসদ সদস্যদের কণ্ঠভোটের মাধ্যমে ছুটি মঞ্জুর করেন।

স্পিকার বলেন, আজ ১৮ সেপ্টেম্বর জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজের মাধ্যমে জনপ্রশাসন মন্ত্রীর একটি ছুটির আবেদনপত্র পেয়েছি।

আবেদনপত্র পাঠ করে স্পিকার জানান, দশম জাতীয় সংসদের সদস্য সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের স্বাস্থ্যগত কারণে অসুস্থতাজনিত কারণে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের কার্যপ্রণালী বিধির ১৭৯(২) বিধি অনুসারে অদ্য ১৮ সেপ্টেম্বর হতে পরবর্তী একাধিক্রমে ৯০ কার্যদিবসের সংসদে অনুপস্থিতির জন্য ছুটি মঞ্জুর।

সংসদে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বর্তমানে ব্যাংককের একটি হাসপাতালে ক্রিটিক্যাল কেয়ার মেডিসিন চিকিৎসকের ইন্টার্ন সামারি রিপোর্ট তুলে ধরা হয়।

এদিকে সৈয়দ আশরাফের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তিনি বর্তমানে থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের একটি হাসপাতালে ক্রিটিক্যাল কেয়ার মেডিসিন ইউনিটে ভর্তি আছেন। গত সোমবারও তার একটি অস্ত্রোপচার হয়েছে। তার চিকিৎসায় আরও অনেক দিন সময় লাগবে। এমতাবস্থায় স্বাস্থ্যগত কারণে তাকে অদ্য ১৮ সেপ্টেম্বর হতে একাধিক্রমে ৯০ দিন পর্যন্ত ছুটি মঞ্জুর প্রার্থনা করছি। এরপর কণ্ঠভোটে দিলে তা পাস হয়।

স্পিকার পূর্বে এ রকম ছুটির নজির উল্লেখ করে বলেন, কার্যপ্রণালী বিধির ১৭৯(২) বিধি অনুসারে কোনো সংসদ সদস্যের অনুপস্থিতির বিষয়ে ওই এমপির আবেদন সংসদে পাঠ করে শোনানোসহ বিতর্ক ছাড়া ভোট দেয়ার বিধান রয়েছে। রেওয়াজ অনুযায়ী স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সংসদে অর্থাৎ ২১ জানুয়ারি ১৯৭৪, ২৬ জুন ১৯৭৫ এবং নবম জাতীয় সংসদের ১৮ মার্চ ২০১২ ও ৫ জুন ২০১৩ তারিখে কয়েকজন সংসদ সদস্যের অনুরোধ সংসদ গ্রহণ করেছে।

সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টে আরো ২০ কোটি টাকা অনুদানের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃবাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টে ২০ কোটি টাকা অনুদান দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে তিনি ৫ কোটি টাকা দিয়ে এ কল্যাণ ট্রাস্ট্রের যাত্রা শুরু করেছিলেন।

 

বুধবার সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে অসুস্থ, অসচ্ছল ও দুর্ঘটনাজনিত কারণে আহত এবং নিহত সাংবাদিক পরিবারের সদস্যদের আর্থিক সহায়তা ভাতা/অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ ঘোষণা দেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট গঠন করে দিয়েছি। এই ফান্ডে আমি কিছু টাকা দিয়েছিলাম। পত্রিকার মালিকরা এই ফান্ডে কোনও টাকা দেননি। মাত্র দুজন টেলিভিশন মালিক ফান্ডে সহায়তা করেন। সেখানে এখন ১৪ কোটি টাকা আছে। আমি আরও ২০ কোটি টাকা দেবো।’ এসময় সংবাদমাধ্যম মালিকদের কল্যাণ ট্রাস্টে অনুদান দেওয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য চলাকালে মঞ্চ থেকে সাংবাদিকরা এই অনুদান আরও বাড়ানোর জন্য তাঁকে অনুরোধ করেন। এসময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি এই ফান্ড গঠন করেছি। গণমাধ্যম মালিকরা এখনও এতে হাত বাড়াচ্ছেন না। আনোয়ার হোসেন মঞ্জু কিছু সহায়তা দিয়েছেন। মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের মালিক কিছুটা সহায়তা করেছেন। আমি সব টেলিভিশন ও পত্রিকার মালিকদের এই ফান্ডে অনুদান দেওয়ার আহ্বান জানান। সেই সঙ্গে বলেন, প্রয়োজনে আমি আরও সহায়তা দেবো। এসময় ফের ২০ কোটি টাকা অনুদান দেওয়ার দাবি করেন সাংবাদিকরা। জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঠিক আছে ২০ কোটি টাকা-ই দেবো।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়নে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করে যাওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমি মনে করি, এটি আমার একটা দায়িত্ব। মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য যা যা করা দরকার আমরা তা করছি।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা সংবাদপত্র ও মিডিয়ার স্বাধীনতায় বিশ্বাসী। আমরা এত উন্নয়ন করার পরও অনেকেই নানাভাবে সমালোচনা করেন। আমরা সংবাদপত্র বা মিডিয়ার কাউকে মুখ বা গলা চেপে ধরিনি। এ কথা কেউ বলতে পারবে না।

তিনি বলেন, ‘শুধু সাংবাদিক নয়, সব পেশাজীবী মানুষের উন্নয়নে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমি মনে করি, এটা আমার দায়িত্ব ও কর্তব্য। কারণ, বঙ্গবন্ধুও সারাজীবন শুধু মানুষের জন্য কাজ করে গেছেন।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রী তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, তথ্য মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি রহমত আলী এমপি প্রমুখ।

নাশকতা মামলায় বিএনপি নেতা হাবিব-উন নবী খান সোহেল আটক

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃবিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর বিএনপির (দক্ষিণ) সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে গত জানুয়ারি মাসে করা একটি নাশকতার মামলায় ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

 

মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) গুলশান  দুই নম্বর চত্বর এলাকা থেকে মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় তাকে আটক করে গুলশান থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

সোহেলকে আটকের পর বিএনপি নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী জানান, আমরা সংবাদ পেয়েছি যে, হাবিব-উন নবী সোহেলকে গোয়েন্দা পুলিশ আটক করে নিয়ে গেছে। সে এখন গুলশান থানায় আছে।

ডিএমপির উপ কমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান বলেন, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে তাকে ঢাকা মহানগর পুলিশ গুলশান এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে।

সোহেলের বিরুদ্ধে নাশকতাসহ বিভিন্ন অভিযোগে অর্ধশতাধিক মামলা রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরেই তাকে খুঁজছিল পুলিশ। শান্তিনগরে তার বাড়িতে একাধিকবার পুলিশ তল্লাশিও চালায়।

সোহেলকে গত ১ সেপ্টেম্বর নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জনসভায় দেখা গিয়েছিল।

পরস্পরকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালেন শেখ হাসিনা-মোদি

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনা আজ বক্তৃতার সময় বলেন, আপনার জন্মদিনে আপনাকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। অপরদিকে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনার জন্মদিন। এ উপলক্ষে আগাম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি।

 

বাংলাদেশ-ভারত ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন প্রকল্পের ভিত্তি স্থাপন এবং ঢাকা থেকে টঙ্গী সেকশনে তৃতীয় ও চতুর্থ ডুয়েলগেজ লাইন এবং টঙ্গী থেকে জয়দেবপুর সেকশনে ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করতে গিয়ে প্রতিবেশী দু’দেশের সরকার প্রধান এই শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

ঢাকায় গণভবন থেকে শেখ হাসিনা এবং নয়া দিল্লিতে নিজের কার্যালয় থেকে মোদী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনটি প্রকল্প উদ্বোধন করেনI

উদ্বোধন শেষে বক্তব্য দিচ্ছিলেন তারা। এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, প্রধানমন্ত্রীজি আপনাকে অনেক অনেক শুভেচ্ছা। গতকাল আপনার জন্মদিন ছিলো। আপনি দীর্ঘজীবী হোন।

এরপর নরেন্দ্র মোদি তার বক্তব্য শেষে বলেন, আপনাকেও (শেখ হাসিনা) অগ্রিম শুভেচ্ছা। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর আপনার জন্মদিন। এরপরে দুজন একসঙ্গে বলেন, শুভ জন্মদিন।

১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন শেখ হাসিনা।  ১৯৫০ সালের ১৭ই সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন নরেন্দ্র মোদি।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে তদন্ত শুরু

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃরোহিঙ্গাদের জোরপূর্বক বিতাড়িত করার সময় তাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত অপরাধগুলো যুদ্ধাপরাধ নাকি মানবতাবিরোধী অপরাধ তা খতিয়ে দেখতে অভিযোগের বিষয়ে প্রাথমিক তদন্ত শুরু করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত- আইসিসি।

 

আজ বুধবার (১৯শে সেপ্টেম্বর) আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত-আইসিসি’র আইনজীবী ফাতো বেনসুদা এই কথা জানিয়েছেন বলে খবর প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

আইসিসি এ পদক্ষেপের ফলে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ওপর পূর্ণ তদন্তের পথ খুলে গেল। রাখাইনে ওই সেনা অভিযানে কয়েক হাজার রোহিঙ্গা নিহত ও সাত লাখের বেশি বাস্তুচ্যুত হয়।

গত মাসে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে মিয়ানমারের সামরিক নেতৃত্বকে বিচারের আহবান জানিয়ে দেয়া জাতিসংঘের তদন্ত প্রতিবেদন মিয়ানমার প্রত্যাখ্যান করেছে। রোহিঙ্গা সংকট নিজেদের নির্দাষ দাবি করেছে মিয়ানমান সেনাবাহিনী।

হেগের এই আদালতের কৌঁসুলি ফাতোও বেনসুদা মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, লাখ লাখ রোহিঙ্গাকে যেভাবে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে বিতাড়িত করা হয়েছে, তাতে যুদ্ধাপরাধ বা মানবতাবিরোধী অপরাধ সংঘটিত হয়েছে কি না-সে বিষয়ে প্রাথমিক তদন্তে হাত দিয়েছে তার দফতর।

তিনি বলেন, প্রাথমিক তদন্তের পরে বিষয়টি আইসিসির আনুষ্ঠানিক তদন্তে রূপ নিতে পারে। এর মধ্যে মানবাধিকার লঙ্ঘন, খুন, যৌন সহিংসতা, গুম, ধ্বংস ও লুটপাটের মতো বিষয় রয়েছে। হেগভিত্তিক আদালত রোহিঙ্গাদের দুর্দশায় নির্যাতন বা অন্য অমানবিক কাজের যোগসূত্র আছে কি না, তাও খতিয়ে দেখবেন।

মিয়ানমার আইসিসিতে স্বাক্ষর না করলেও বিচারকেরা রুল জারি করেছেন যে, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের বিচার চলবে, কারণ বাংলাদেশ আইসিসির সদস্য। সূত্র; বিবিসি

প্রথমবারের মতো উত্তর কোরিয়া সফরে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃপ্রথমবারের মতো আন্ত:কোরীয় বৈঠকে অংশ নিতে সস্ত্রীক উত্তর কোরিয়া গেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জা ইন।

 

মঙ্গলবার দুপুরে উত্তরের রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে এবারের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। দুই কোরিয়ার সম্পর্ক উন্নয়ন ও কোরিয়া উপদ্বীপকে পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত করার বিভিন্ন উপায় নিয়ে আলোচনা করেন তারা।

তিন দিনের এই সফরে স্থবির পারমাণবিক আলোচনাকে এগিয়ে নিতে তৃতীয়বারের মতো বৈঠকে বসছেন দুই দেশের শীর্ষ নেতা।

বৈঠকে উত্তর কোরিয়া এবং দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে পারমাণবিক নিরস্ত্রিকরণ বিষয়ে এক ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। পিয়ংইয়ংয়ে সফরে থাকা দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জা ইন এবং উত্তরের কিম জং উনের মধ্যে স্বাক্ষরিত সুদূরপ্রসারী এ চুক্তি দুই কোরিয়ার সম্পর্কের মাইলফলক হয়ে থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে।

উত্তর কোরিয়ার প্রধান ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ও উৎক্ষেপণ করার সাইটগুলো বন্ধ করার জন্য দুই দেশের নেতা একমত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন। আজ বুধবার নিজেদের মধ্যে বৈঠক শেষে মুন জানান, পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণে সহমত হয়েছে তারা।এ ছাড়া দুই কোরিয়ার অভ্যন্তরীণ রেল সংযোগ, যুদ্ধের ফলে পৃথক পরিবারগুলোর পুনর্মিলন এবং স্বাস্থ্যসেবার ওপর সহযোগিতা করার পরিকল্পনা করছে বলে জানান দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট।

উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন সামরিক শান্তি রক্ষায় এ উপদ্বীপকে আরো একধাপ এগিয়ে নেওয়ার পদক্ষেপ হিসেবে অভিহিত করেন এই চুক্তিকে।

এসময় দু’দেশের নেতা কোরিয়া যুদ্ধের কারণে বিচ্ছিন্ন হওয়া পরিবারদের একত্র হওয়ার অনুমতি দেওয়া ব্যাপারে সম্মত হন। এছাড়া দেশ দুটির মধ্যে রেল যোগাযোগ স্থাপন এবং স্বাস্থ্য বিষয়ে একে অপরকে সহযোগিতা করার ব্যাপারেও পরিকল্পনা করেন তারা।

চুক্তি স্বাক্ষরের পর দক্ষিনের প্রেসিডেন্ট মুন বলেন, উত্তর কোরিয়া টোংচাংরি ক্ষেপণাস্ত্র পরিক্ষা এবং উৎক্ষেপণ কেন্দ্রটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করার ব্যাপারে রাজি হয়েছে।

উত্তরের নেতা কিম জং উন বলেন, তিনি তার প্রতিবেশী দেশের নেতাকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যে আগামীতে দক্ষিণ কোরিয়া সফরে যাবেন।

যদি অদূর ভবিষ্যতে কিম জং উন দক্ষিণ কোরিয়া সফরে যান তাহলে এটাই হবে উত্তরের কোনো সর্বোচ্চ নেতার প্রথমবারের মতো দক্ষিণ কোরিয়া সফর।

এছাড়াও দু’দেশের মধ্যে সামরিক উদ্বেগ কমাতে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী এবং উত্তর কোরিয়ার সেনাপ্রধানের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় এ সফরে।

এশিয়া কাপে ভারত-পাকিস্তান মহারণ আজ

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃএবারের এশিয়া কাপে গ্রুপ পর্বেই মুখোমুখি হচ্ছে চির প্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান। 

 

আজ বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় এশিয়া কাপের গ্রুপ পর্বে পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামছে রোহিত শর্মার দল। ম্যাচটি দেখাবে বিটিভি, গাজী টিভি ও মাছরাঙা।

দ্বিপাক্ষিক কোনও সিরিজ না খেলায় দীর্ঘদিন পর পর দেখা মেলে এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর। আইসিসির বড় কোনও টুর্নামেন্ট ও এশিয়া কাপ ছাড়া সচরাচর এদের দেখা যায় না। রাজনৈতিক বিরোধের যাতাকলে পড়ে এ দু’দলের দ্বৈরথ থেকে বঞ্চিত ক্রিকেট বিশ্ব। যার কারণে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই ভক্তদের মধ্যে বাড়তি উত্তেজনা।

গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে হংকংকে ৮ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে বেশ ফুরফুরেই আছে পাকিস্তান শিবির। অন্যদিকে গতরাতে হংকংকে ২৬ রানের পরাজিত করলেও পরাজয়ের শঙ্কায় ছিল ভারত। শেষ পর্যন্ত হংকং অভিজ্ঞতার কাছে পরাজিত হয়। পাকিস্তানিদের জন্য সবচেয়ে আনন্দের বিষয় হচ্ছে ভারতীয় দলে অনুপস্থিত নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তাছাড়া সবশেষ চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনালে ভারতকে হারানোর স্মৃতি তো জ্বলজ্বল করছেই। দুবাইয়ের মাঠে ভারতের চেয়ে অনেক এগিয়ে পাকিস্তান। কারণ পাকিস্তানে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের ওপর জঙ্গি হামলার পর দুবাইতে পাকিস্তান হোম ভেন্যু হিসেবে খেলে থাকে। এছাড়াও বর্তমান পারফর্মে বেশ দারুণ অবস্থানে আছে সরফরাজ আহমেদের দল।

বিরাট কোহলিকে বিশ্রাম দেওয়ায় অনেকেই ভারতের শক্তি নিয়ে ভিন্নভাবে দেখছেন। হংকংয়ের বিপক্ষে তাদের স্লো ব্যাটিং ও বোলিং ছিলো তার অন্যতম উদাহরণ। তবে পাকিস্তান অধিনায়ক মনে করছেন তাতে ব্যবধানে হেরফের হবে না মোটেও, ‘এ নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই কোহলি ওদের নিয়মিত অধিনায়ক এবং বিশ্বমানের একজন ব্যাটসম্যান। তবে কোহলি ছাড়াও ভারত শক্তিশালী একটি দল। ওদের ব্যাটিং লাইন আপ খুবই শক্তিশালী। তাই সব মিলিয়ে বলতে পারি দারুণ একটা ম্যাচ হতে যাচ্ছে।’

অবশ্য ‍এবারের এশিয়া কাপে ভুক্তোভোগী বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত। সূচি নিয়ে আগেই ক্ষুব্ধ ছিলো তারা। তাই টানা দুই দিন ম্যাচ থাকায় হংকংয়ের বিপক্ষে বিশ্রামে ছিলেন বেশ কয়েকজন তারকা। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ বলে ‍মূল অস্ত্রদের শাণিয়ে রাখার এই ব্যাবস্থা। ফিরবেন বুমরাহ ও হার্দিক পান্ডিয়া। ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মাও বলেছিলেন প্রথম ম্যাচের পরই এই ম্যাচের রণ কৌশল নিয়ে ভাববেন। অপর দিকে দুই দিনের বিশ্রামের পর ফিরছে পাকিস্তান।
এদিকে, এই ম্যাচ দিয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে ৪,৫৩৬ দিন পর পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে নামবে ভারত। ২০০৬ সালে আবুধাবিতে সর্বশেষ পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে খেলেছিলো ভারত। সেই ম্যাচে ৫১ রানে জয় পায় তৎকালীন রাহুল দ্রাবিড়ের ভারত। তাই প্রায় সাড়ে ১২ বছর পর আবারও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে আবারো লড়বে ভারত ও পাকিস্তান। তবে দুবাইয়ের ভেন্যুতে আগে কখনোই মুখোমুখি হয়নি দু’দল।

সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদকের বাছাই

খালেদার জন্য মেডিকেল বোর্ড গঠনের নির্দেশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

একাত্তর নিউজ ডেস্কঃবিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য মেডিকেল বোর্ড গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে এ মেডিকেল বোর্ড যা সুপারিশ...